২২ বছরের মধ্যে জাপানের প্রতিরক্ষা খাতে সর্বোচ্চ বাজেট বরাদ্দের প্রস্তাবে
টোকিও-এইদেশ, শনিবার, সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৩


জাপানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয় আগামী অর্থ বছরে প্রতিরক্ষা বাজেট ৩ শতাংশ বৃদ্ধি করতে চাইছে। গত ২২ বছরের মধ্যে এটিই হবে প্রতিরক্ষা খাতে জাপানের সর্বোচ্চ বাজেট। সদস্যদের পেছেন খরচ, প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম আমদানি প্রভৃতি খাতে তাদের বাজেট বাড়ানো হচ্ছে।

এপ্রিল ২০১৪ সাল থেকে এই বাজেট কার্যকর হবে। পূর্ব চীন সাগরে বসতিহীন দ্বীপপুঞ্জ নিয়ে চীনের সাথে জাপানের দ্বন্দ্ব প্রকট হয়ে উঠছে। অনেকেরই আশংকা এই দ্বন্দ্ব শেষ পর্যন্ত গুরুতর রূপ নিতে পারে।

সাম্প্রতিক বছর গুলোতে জাপান তার প্রতিরক্ষা বাজেট কমিয়ে দিচ্ছিলো। তবে গত ডিসেম্বরে প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতায় আসার পর বিতর্কিত দ্বীপপুঞ্জ নিয়ে কঠোর অবস্থানে থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। চলতি অর্থবছরে ১১ বছরের মধ্যে প্রথমবার জাপান সামরিক খাতে বাজেট বৃদ্ধি করে।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয় আগামী বছর বাজেটে ৪.৮২ ট্রিলিয়ন ইয়েন বাজেট চাইবে, বর্তমানের তুলনায় বাজেট ৩ শতাংশ বাড়বে।

২০১১ সালের ভূমিকম্প ও সুনামিতে ব্যপক ধ্বংসযজ্ঞের পর ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চল পুনর্গঠনের উদ্দেশ্যে জাপানের সকল সরকারি কর্মকর্তার বেতন ৭.৮ শতাংশ ছাঁট করা হয়।

এই সাময়িক ব্যবস্থা আগামী মার্চে শেষ হচ্ছে, ফলে প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়কে শুধুমাত্র সদস্যদের পেছনেই ১০০ বিলিয়ন ইয়েন বরাদ্দ করতে হবে।

এ ছাড়াও আগামী বছর মন্ত্রনালয় অনেক উঁচু দিয়ে উড়তে সক্ষম চালক বিহীন সার্ভেইল্যান্স বিমান এবং মার্কিন অসপ্রে বিমান সংগ্রহের পরিকল্পনা করেছে।

অসপ্রে, ড্রোন -গ্লোবাল হক ইত্যাদি বিমান গুলো জাপানের দূরবর্তী দ্বীপগুলোর প্রতিরক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।

বোয়িংয়ের অসপ্রে এবং টেক্সট্রন নির্মিত বেল হেলিকপ্টার ইউনিট বিমানের মত দ্রুত ছুটতে পারে এবং হেলিকপ্টারের মত অবতরণ করতে পারে।

"দ্বীপাঞ্জলে কোনো ধরণের হামলার যথাযথ প্রত্যুত্তর দিতে সাগর এবং আকাশে আধিপত্য ধরে রাখা অপরিহার্য" মন্ত্রনালয় বাজেট বৃদ্ধির আবেদনে বলে।

এ ছাড়াও উত্তর কোরিয়ার হুমকি মোকাবেলায় ১.৫ বিলিয়ন ইয়েন বরাদ্দ করার পরিকল্পনা রয়েছে। এর মধ্যে উন্নত প্রশিক্ষণ ও উভচর সক্ষমতা বৃদ্ধির বিষয়টিও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

জাপানের কোস্টগার্ড তার বাজেট ১৩ শতাংশ বাড়িয়ে ১৯৬.৩ বিলিয়ন ইয়েনে উন্নীত করতে চাইছে। এই অর্থ দিয়ে নতুন টহল জাহাজ এবং জেটি নির্মাণ করা হবে।

কোস্টগার্ড তাদের সদস্য সংখ্যা ৫২৮ জন বাড়াতে চাইছে। কয়েক দশকের মধ্যে এটি হবে তাদের সর্বোচ্চ জনবল সংগ্রহ। এ ছাড়াও তারা ১০টি টহল জাহাজ সংগ্রহের পরিকল্পনা করছে।