বদরুল বোরহান'র ছড়াগুচ্ছ
টোকিও -এইদেশ, শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ০১, ২০১৩


একটা নতুন সূর্যোদয়
---------------------------------

একটা নতুন সূর্যোদয়ের অপেক্ষাতে আছি,
একটা নতুন সূর্যোদয়ের প্রতীক্ষাতে বাঁচি।

প্রতিদিনের সূর্যোদয়ে নতুন আশায় থাকি,
প্রতিদিনের সূর্যোদয়ে স্বপ্ন নতুন আঁকি।

কিন্ত আমার আশাগুলো অন্কুরে হয় নষ্ট,
স্বপ্নগুলো আঁতুড় ঘরে হারিয়ে যাবার কষ্ট।

তবু নতুন সূর্যোদয়ের আশাতে বুক বাঁধি,
স্বপ্ন বুকে আশার আলোয় হাসি এবং কাঁদি।


ঢাকার শহর
-------------------------------

আকাল আকাল রাজধানীতে ভীষণ রকম আকাল,
যানজট আর ভেজাল খেয়ে নগরবাসী নকাল।
একটুখানি বৃষ্টি হ'লেই যায় ডুবে সব রাস্তা,
সবকিছুতে নগরবাসীর নেই মোটে আর আস্থা।
বায়ুদূষণ, শব্দদূষণ, কঠিন জীবন-যাত্রা,
বৈচিত্রহীন জীবন-যাপন পায় না নতুন মাত্রা।
ভূমি দখল, নদী দখল, নকল সকল পণ্য,
জীবন-যাপন নয় নিরাপদ, ব্যাপারটা জঘন্য।
হয়রানি আর দুর্নীতিতে নির্বাসিত সত্য,
সামাজিক এই অবক্ষয়ের কোথায় পাবো পথ্য?

ছন্দবিহীন মন্দ ঢাকা হবেই পরিত্যাজ্য,
'মুনতাসীর'র এই উক্তি সত্য এবং ন্যায্য।


কা কা
-------------------------

বিনয় কুমার দাঁ,
তাকে ঘিরে কাকগুলো সব
ডাকছিলো কা কা;
কারণ, তার হাতে যে ছিলো একটা
পাতি কাকের ছা।

ভরদুপুরে
গলির মোড়ে,
হাজারটা কাক
কেবল ওড়ে।

চলতি পথে সব পথিকে
তাকিয়ে থাকে হা,
কিন্ত বিনয় অটল-অনড়
তার মুখে নেই রা।

সবাই শোনে হাজার কাকের
একটানা কা কা।


রাজনীতির হালচাল
---------------------------------

দিনদুপুরে, দিব্যালোকে
আস্ত মানুষ গুম,
এসব দেখে আমজনতার
হারাম চোখের ঘুম।

সরকারি দল তৃপ্তিতে নেয়
লেপ-তোষকের উম,
পা চাটার দল নেত্রী-নেতার
পা চেটে দেয় চুম।

বিরোধী দল ফন্দি আঁটে
রাত হ'লে নিঝ্ঝুম,
"হেন করেগা, তেন করেগা
কেয়া করেগা তুম"?

কর্মী মরে শীত-গরমে
নেতার এসি রুম,
বিরোধী দল আন্দোলনে
সরকারি দল "বুম"।

*************